কমরেড-কবিয়ত্রী কথা

লিখেছেন - শুভশ্রী রায়

কমরেড-কবিয়ত্রী কথা শুভশ্রী রায় সে এক মজে মজার গল্পকথা খবরের কাগজ ভেতর ঘটেছিল জাদুর মতো এ শহরেই একদা। কমরেড সুপুরুষ তায় চিরকুমার বেশি করে দেখে তাকে, খবর হাতে সে এক সাব এডিটর হ'ল বিমার। আহাহা ডেস্কে মেয়ে খবর লেখে করুণ কম মাইনের সাব এডিটর সাথে তার কাব্য ছিল ছোট্ট থেকে। কমরেডকে দেখে ও আরো দেখে খবর লেখার সময় রোমাঞ্চ হয়, কলম তার গেছিল একটু কেঁপে! ওপরে চাঁদও ছিল নিজের মতো হেসেছিল দুষ্টু হাসি নিটোল মুখে চাঁদের নামেও নালিশ শত শত! সে চাঁদ বড়ই ফাজিল এবং ইতর কত কত কান্ড ঘটায় জেনে শুনে ঘোরতর ফাঁদ পাতা তার ভিতর। তার পরে কার কত গুণ বা দোষ! দেব যে কিসে খুশি কে তা বোঝে কোনটা তার অভিমান কিম্বা রোষ! কে সরল কে দোষী চাপানউতোর যদি চাঁদ নেমেও আসে সোজাসুজি একেবারে ঢাকুরিয়া সেতুর ওপর! ভালোবাসা হয়েছিল কী, না হয়নি? এ ব্যাপারে দু'জন তারা নীরব ছিল কোথাও, একটুও বাক্য তো কয়নি। কবিয়ত্রী, ভালোবাসা সস্তা নাকি? বল, কমরেড তোর কী এমন কে, মৌসুমী বাতাস জানে; গল্প বাকী।

অতীত, কর্মস্থল, ভালোবাসা