চাঁদ-কিনারে অভিসারে

লিখেছেন - শুভশ্রী রায়

সুখে গোল চাঁদ-কিনারে একেবারেই পুকুরপাড়ে মওকা পেয়ে কারা যেন ফেলে রাখা কাম্য সারে! চন্দ্রমা লুকিয়ে গিয়েও নিয়ে হাসিখুশি বদন বাড়ে অসুখীরা তৃপ্তি পেতে যায় চাঁদভাসা জলের ধারে। জলের মুখে জ্যোৎস্না খেলা অনেকের দৃষ্টি কাড়ে বাকীরা বাড়াবাড়ি মগ্ন হয়ে চেপে রাখা কষ্ট মারে। বাসনা মিটিয়ে নেয় সাধ্য মতো যতটা যেমন পারে চাঁদের নিচে কামের পুকুর, এ সুযোগ কে বা ছাড়ে! প্রেত আর প্রেতিনীরাও আসে দেহ ছাড়া অভিসারে, এমন চন্দ্রমধু পানের চাহত; কেউ কী ছাড়তে পারে? কবিয়ত্রী একা খুব অসুখী, কামনারই ভীষণ তাড়ে সেখানে চুপচাপ চলে যায় পা টিপে আর নিসাড়ে, দেখে প্রেত, প্রেতিনী, নারী, পুরুষ মিলে গলা ঝাড়ে সব অখুশি, বিদায় জানায়, কাম তার মেটে না রে!

চাঁদের মায়া, চিরচেনা আবহে বদল