পারি না আমি!

লিখেছেন - বোরহানুল ইসলাম লিটন

হাসতে পারি না আজো পলাশের মতো দখিনা সমীরে শাখে আড়াআড়ি দুলে, পারি না কলমি ফুল গুঁজতে সোহাগে ষোড়শী মেঘের ঘন কোঁকড়ানো অগোছালো চুলে। দূর্বাঘাস ডাক দিলে লাজে রাঙা প্রাতে শানিত মস্তকে রেখে হাস্যোজ্জ্বল শিশিরের কণা, ভীষণ ব্যাকুলে দেখি আশাহত চোখে ক্যামনে ডাহুক দানে অবশেষে বেনোজলে লোনা। পথের দু’পাশে জাগা শিশুগাছ যতো তৃষ্ণার্ত বৈকাল চষে সদ্ভাবের সাক্ষী হয় যদি, আহত ক্ষেতের ঠিক ওপারেই মিলে খুঁজছে ধবল বক অতি চুপিসারে আছে কি না থেমে গেছে ভেবে সেই টগবগে নদী। পারি না দেখতে আমি পায়রার নীড়ে দুষ্টুমীর স্বরে গড়া শালিকের বাঁকা আবেদন, পারি না দেখতে আমি টলটলে জলে টাকির সদরে ক’টা খলশের বৃথা আস্ফালন।