বেমানান

লিখেছেন - শুভশ্রী রায়

তোমাদের ঘোরতর সভ্যতায় আমি বেমানান এখানে আমি কারুর বেশি কিছু নই যেটুকু যা হই, ভীষণ আলগা আলগা আর ওপর ওপর, ফেনার মতন এই সভ্যতা আর আমি পারস্পরিক এতই আলগা যে দুজনে দুজনকে অত্যাবশ্যকীয় উপাদান দিতে পারি না একটিও এমন কী এতটুকু স্বস্তিও নয়। যেহেতু তোমাদের ঘোরতর পণ্যায়িত জীবনপথ সবুজের আদিজীবন থেকে সরে এসেছে অনেক, অনেক দূরে। এখানে বাতাসে শুধু দরদাম, নিভৃতি সেই কবে পিছু হটে গ্যাছে হাওয়ার সঙ্গে অবধারিত ঘরে ঢোকে পণ্যের সুনাম আমি এই পয়সাঘেঁষা, কল্পনাবর্জিত সভ্যতার সঙ্গে মানাতে পারি না কিছুতেই, কবিতা যেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের কাছে অশালীন প্রলাপ। মনে হয় অনেক দূরে চলে যাই যেখানে সবুজের মধ্যে স্বচ্ছ পুকুরে সাঁতার কাটে অনন্তের হাঁস সেই সবুজ অঞ্চলে একাগ্র বসে থাকি পাশ দিয়ে বয়ে যাক উদাসী সময় মাটির উদার সবুজ আঙুলে মেখে আমি লিখব একটা-দুটো মায়াময় কবিতা, এর বেশি উচ্চাকাঙ্ক্ষা বইতে পারে না আমার সবুজঘেঁষা মন। আমি এই আগ্রাসী পণ্য সভ্যতার কেউ নই কোটি কোটি মানুষের মতো আমাকে সে আরো একজন ক্রেতা বলে জানে শুধু মুনাফাবিহীন কোনো পরিচয় নেই এখানে আমার। চকচকে মোড়কে ভরা পণ্য যার সার, আত্মাবর্জিত সেই সভ্যতা আর আমি পরস্পরের সংস্পর্শে করি হাঁসফাঁস, আমাকে বাদ দিয়ে তোমরা চালাও মান্যগণ্য এই ত্রাস।

নগরকেন্দ্রিক পণ্যসভ্যতা, স্বস্তির অভাব