সাম্প্রতি৷ চিত্র “

শব্দের বারান্দা

অস্বচ্ছ ক্ষমতার জোরে বিত্তবানে গর্ব করে
ন্যায় কেন্দে মরে অন্যায়ের মুষ্টি – থাপ্পড়ে ।।

মনুষ্যত্ব বিকিয়ে দিয়ে নির্লজ্জ বেহায়া হয়ে
দাম্ভিকতায় ভর দিয়ে অপকর্মে যাচ্ছে তলিয়ে ।।

স্বাধীন দেশের একি করুণ নগ্ন হাল
ক্ষমতা বানের পোয়াবারো গরীব দুঃখী কংকাল ।।

লক্ষ লক্ষ মানুষের জোটেনা দুবেলা আহার
কালকের পুঁচকে গড়ে অবৈধ অর্থের পাহাড় ।।

দারিদ্র্যের কষাঘাতে জর্জরিত অগনিত মেধাবী ছেলে
রাস্তায় মরে ধুঁকে কর্ম নাই বলে ।।

মেধাবীদের হয়না চাকুরী অর্থের নাই জোর
ঘুষের বিনিময়ে পেয়ে চাকুরী হচ্ছে চোর ।।

দুর্নীতির চাদরে ধর্ষণের সাগরে লেখা স্বর্ণাক্ষরে
মহোৎসব দুর্নীতির ঘরে ছেঁড়া টাকা ভাগাড়ে ।।

মসজিদের শহর নামে খ্যাত প্রাচীন ঢাকা
যেখানে নজর সেখানেই ক্যাচিনোর ব্যবসার টাকা ।।

গুলশান বনানী এলিফ্যান্ট মীরপুর আর গ্যান্ডারিয়া
সর্বত্রই যেন গেছে অবৈধ ব্যবসায় ভরিয়া ।।

জুয়া মদ আর সুন্দরী ললনার বেলাল্লাপনা
ঢাকা শহর এখন নিত্যনতুন সজীবের আলপনা ।।

সতেরো কোটি মানুষের সভ্য স্বাধীন দেশে
গুটি কয়েক নরপশু রক্ত খাচ্ছে চুষে ।।

রাজনীতির নামে নোংরা পশুবৃত্ত লোভ লালসা
কলুষিত বঙ্গভূমি মিটছে না রক্তের পিপাসা ।।

চামচামি তেলবাজি – অসৎ অর্থ জায়েজে কারসাজী
পক্ক হয়েছে অপক্ক – অপক্ব কাজের কাজী ।।

মাঠের কর্মী কেটে ঘাস করে হাহুতাশ
ভুঁইফোঁড় নেতা বলে পায় তুরুপের তাস ।।

ত্যাগী হয়ে গেছে অসৎ দুর্নামের ভাগী
চাটুকার মতলববাজ অর্থের জোরে হয়েছে ত্যাগী ।।

প্রযুক্তি নির্ভর একবিংশ শতাব্দী সভ্যতার বাজারে
গুম খুন আর ধর্ষণের স্বর্ণযুগ একনজরে ।।

সমাপ্তি ।।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply