গাঁয়ে আছে স্নেহছায়া ……..আছে মায়া আমার গাঁয়ের কবিতা-৩ (তৃতীয় পর্ব)

শব্দের বারান্দা

গাঁয়ে আছে স্নেহছায়া ……..আছে মায়া
আমার গাঁয়ের কবিতা-৩ (তৃতীয় পর্ব)

কলমে- লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী

প্রভাতবেলা আমার গাঁয়ে
তপন যখন উঠে,
ফুলের বনে ফুলের কলি
একে একে সব ফুটে।

মাটির ঘরে পাঁচিল পরে
ময়না চড়ুই বসে,
কুয়োতলায় নিম গাছের
পাতা পড়ে খসে খসে।

দিঘির জলে মরাল চলে
মরালীরা পাছে ধায়,
দক্ষিণ পাড়ে আমের গাছে
বসন্তে কোকিল গায়।

আমার গাঁয়ে তরুর ছায়ে
রাখাল বাজায় বাঁশি,
আমার গাঁয়ে পথের বাঁয়ে
মাঠে চাষ করে চাষী।

নদীর ঘাটে সাঁতার কাটে
দুপুরে ছেলের দল,
বিকাল হলে পল্লীবধূরা
নদী থেকে আনে জল।

সাঁঝের বেলা আঁধার নামে
আমার গাঁয়ের পথে,
বেজে ওঠে সাঁঝের সানাই
নাহি জানি কোথা হতে।

রাত্তির বেলা জোছনা ঝরে
আমার মাটির ঘরে,
পথের বাঁকে শেয়াল হাঁকে
কভু কাঁদে সুর করে।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply