দগ্ধ স্মৃতি কয় –
ভাবতে পারো আমায় মিঠা নয়তো বা নির্দয়!
সন্ধ্যা সকাল পাই যে হালে
চলবো ধেয়ে আপন তালে
ঘোর রাতেরও নব্য বিষম ফেরে –
ক্ষ্যামতা র’লে যাও তো দেখি স্কন্ধ থেকে ঝেড়ে!

বয়স মেনে চ্যাংড়া ঘুড়ি ছোট্ট সেজে খুকি,
চান্দে যাবো ইচ্ছেমতো স্বর্গে দেবো উঁকি!
শুষ্ক হলে ক্রোধের ঢেলা
গড়বো বুঝেই মেঘের ভেলা
রোদ বাতাসের সখ্য প্রীতি কেড়ে –
ক্ষ্যামতা র’লে যাও তো দেখি স্কন্ধ থেকে ঝেড়ে!

হাঁটবো সুখে এই দেবো দৌড় গাইবো হয়ে পাখি,
হিম হবো ফের পড়তে ঢলে বন্ধ রেখে আঁখি!
থাকলে নীরব হেলায় রত
উঠবো পেকে ফোঁড়ার মতো
আস্থা ভীতির টাকলা মাথা নেড়ে –
ক্ষ্যামতা র’লে যাও তো দেখি স্কন্ধ থেকে ঝেড়ে!