শহরের ইট বালু – কেড়েছে কি তাজা তালু?
মনে নেই সেই গীতি সুমধুর?
একবার দ্যাখো যদি – শ্যামা এই গুড় নদী
অনায়াসে ফিরে পাবে সুধা সুর।

এ যে চির সুরবালা! – ফল ফুলে গাঁথে মালা
মায়াবিনী মুখে তার কতো পণ,
মাছরাঙা পানকৌড়ি – দেহে করে ওড়া উড়ি
জোনাকিও বায়ু রাতে আলাপন।

ধড়ফড়ে স্রোত ধারা – জাগাবেই বুকে সাড়া
রবে কি ফসল ঢালে দেখে চুপ!
কাঁচা আর পাকা বাড়ি – দুই পাড়ে সারি সারি
বুঝবে এ ছবি কতো অপরূপ।

লহরির কুন্তলে – মাছ ঘুরে দলে দলে
পাশাপাশি নাও চলে হররোজ,
নয় কিছু কম দামী – হংসের পাগলামি
মিতালিতে বেঁধে যদি করো খোঁজ।

এসো সবে র’লো আশা – দেবো গাঁ’র ভালোবাসা
সাদা-সিধে মানুষের তাজা টান,
জেনো মেঘ সেজে পাখি – বিটপীতে আঁকে আঁখি
এ নদীরই পেয়ে প্রেমী আহ্বান।