তুমি আকাশ মুঠোবন্দি করে
আমার কাছে চাইলে নক্ষত্রের লাবণ্য। আমি
আকাশের নিরুদ্দেশ সংবাদ স্রষ্টাকে
জানিয়ে প্রার্থনায় হলাম অবনত। পেলাম না স্রষ্টার
অনুকম্পা। বরং উপহাস মিললো অবিরত।
‘আকাশ ভরা নক্ষত্র চাই’-এ কথায়
আমিও অনড় পাথর। বাতাস হামলে
পড়ে বললো, আমি অনুরাগ কাতর!

তুমি সমুদ্রকে বাথটবে আটকে রেখে
বললে ঢেউয়ের স্বরলিপি খুঁজে এনে দিতে। আমি
ছুটোছুটি করলাম দিগি¦দিক, দেখি কেবল
বালুচর। বুকের ভেতর ককিয়ে ওঠে
ঝরা পাতার মর্মর। কলহাস্যে কে যেন বলে
গেল, আমি এক অভিশপ্ত লখিন্দর!

তুমি অমাবশ্যার অতলে কেন খুঁজো জ্যোস্নার প্লাবন?