তুমি আমার জন্য অপেক্ষা করো, দিন,মাস বছর..
এমন কি অনন্তকাল! আমি স্বপ্ন বিলাসী কবি
উচ্ছ্বাস-অনুরাগে, তোমাকে দেবো অর্ঘ্য। হাসলো
কি-কাঁদলো স্বর্গ, অভিমানের মলাটে মেঘ বন্দি
হলো কি-হলো না, পরিবেশ বিপর্যয়ে হিমালয়ের উষ্ণতা
বাড়লো কি-কমলো, এ নিয়ে ভাববার কিছু নেই।
কে-কি পেলো, কে কোথায় খেই হারালো, নায়াগ্রার জলে
কী ভেসে গেলো-ওসবে আগ্রহ নেই একবিন্দু। তুমি
যে আমার সামনে অপার বিস্ময়ের এক সিন্ধু!

পৃথিবীর কোথায় সুনামী-প্রলয়-শোক, কোথায়
উৎসব-আবিস্কারের মাতম, যুদ্ধবাজ শাসকের অট্টহাসিতে
কে কাঁপলো বা রূপের হাটে কোন ঊর্বশী মুকুট জিতে
নিলো-এ সব খবরে আমার কি যায়-আসে? নিরেট
নির্মোহে আমি নদীর কলধ্বণির মতো শুধু তোমার বন্দনায়
ব্যস্ত। আমি এই জন্মে, পরজন্মেও তোমার হবো।