সারাদিন ছিলাম সহজে
দ্বন্দ্বে কিছু মসৃণতা ছিল
এখন রজনী আসে রন্ধ্রে রন্ধ্রে বিদ্যুৎ চমকায়,
পশ্চিমী অরণ্য থেকে নেকড়ের পাল
সূর্যাস্ত ধর্ষণ করে বিছূর্ণ শিশুর ঘিলু ছড়ায়, টেবিলে

বিধ্বস্থ মানচিত্র খুলে ঝুঁকে আছে
কাঁধের তারকা |

চার পাহাড়ের খাঁজে রক্তস্রোত ঢুকে পড়ে
রাত্রির বাণিজ্য ঘিরে নেমে আসে ধস্ |

যারা ছিল এতক্ষণ কাছে
অক্ষম আমাকে ফেলে ছুটে গেল হাতে নিয়ে টাঙ্গি ও মশাল
দিগন্ত বিশাল ধ্বনি, লাল,
যে বাটিতে অন্নপান সে বাটিতে যন্ত্রণার সুরাপান করি
জ্বলে যাই উৎকন্ঠ শর্বরী |