জীবন থেকে হারিয়ে গেলো কতগুলো বসন্ত,
কেউ এসে জানতে চাইলোনা কেমন আছি!
কেউ শুনতে চাইলোনা হৃদয়ের হাহাকার!

সে একবার আড় চোখে তাকিয়েছিল,
বক্ষের বাঁ দিকটা ধক করে উঠেছিলো সেদিন,
কিন্তু –
সে বাঁকানো চোখ, ধারালো নাক, কোঁচকানো ভ্রু-
এসব যেন এক মায়া-মরীচিকা!
যেন হৃদয় বিধ্বংসী এক উপহাস।

সেদিন বুঝেছিলাম,
বুঝেছিলাম, উপহাসটাই যেন উপহার!
যেন আজন্মকালের পাওনা।

বছরের পর বছর চলে গেলো!
আর চোখে পড়েনি ওই দিঘল এলোচুলের বাহার,
চোখে পড়েনি সেই ঠোঁটের উপহাসের হাসি।

একেকটা দিন যেন কয়েক বছর সমতুল্য,
অপেক্ষা –
শুধু তোমারি অপেক্ষা।
ভালোবাসার জন্য নয় আর না তো প্রেম ক্ষুধার,
অপেক্ষা শুধু তোমার উপেক্ষার।