আত্মবিলাপ

লিখেছেন - মাইকেল মধুসূদন দত্ত

আশার ছলনে ভুলি কী ফল লভিনু,হায়, তাই ভাবী মনে? জীবন-প্রবাহ বহি কাল-সিন্ধু পানে যায়, ফিরাব কেমনে? দিন দিন আয়ুহীন হীনবল দিন দিন,— তবু এ আশার নেশা ছুটিল না? এ কি দায়! রে প্রমত্ত মন মম! কবে পোহাইবে রাতি? জাগিবি রে কবে? জীবন-উদ্যানে তোর যৌবন-কুসুম-ভাতি কত দিন রবে? নীর বিন্ধু, দূর্বাদলে,নিত্য কিরে ঝলঝলে? কে না জানে অম্বুবিম্ব অম্বুমুখে সদ্যঃপাতি? নিশার স্বপন-সুখে সুখী যে কী সুখতার? জাগে সে কাঁদিতে! ক্ষণপ্রভা প্রভা -দানে বাড়ায় মাত্ত আঁধার পথিকে ধাঁদিতে! মরীচিকা মরুদেশে,নাশে প্রাণ তৃষাক্লেশে— এ তিনের ছল সম ছল রে এ কু-আশার। প্রেমের নিগড় গড়ি পরিলি চরণে সাদে কী ফল লভিলি? জ্বলন্ত-পাবক-শিখা-লোভে তুই কালফাঁদে উড়িয়া পড়িলি পতঙ্গ যে রঙ্গে ধায়,ধাইলি,অবোধ,হায় না দেখলি না শুনিলি,এবে রে পরাণ কাঁদে বাকি কি রাখিলি তুই বৃথা অর্থ-অন্বেষণে, সে সাধ সাধিতে? ক্ষত মাত্ত হাত তোর মৃণাল-কণ্টকগণে কমল তুলিতে নারিলি হরিতে মণি, দঃশিল কেবল ফণী এ বিষম বিষজ্বালা ভুলিবি, মন,কেমনে! যশোলাভ লোভে আয়ু কত যে ব্যয়িলি হায়, কব তা কাহারে? সুগন্ধ কুসুম-গন্ধে অন্ধ কীট যথা ধায়, কাটিতে তাহারে? মাৎসর্য-বিষদশন, কামড়ে রে অনুক্ষণ! এই কি লভিলি লাভ,অনাহারে,অনিদ্রায়? মুকুতা-ফলের লোভে,ডুবে রে অতল জলে যতনে ধীবর, শতমুক্তাধিক আয়ু কালসিন্ধু জলতলে ফেলিস,পামড়! ফিরি দিবি হারাধন,কে তোরে,অবোধ মন, হায় রে,ভুলিবি কত আশার কুহক-ছলে!