পরস্পরের কাছে খুলে যেতে গোপনতা দরকার
মন ও দেহ মেলে দেব নিজেদের কাছে পরিষ্কার ।

প্রায় তিন দশক আগেকার গলির কেষ্টকে
ছ’ মাস আগে পেয়ে গেছি মুখ বইয়ের পারে।
পরীক্ষা হোক, সংসারী সংযম হারে কী না হারে।
যদিও যে সময় চলে যায় শুধু সেটাই সোনালি
তবুও সাবধানী মাঝ বয়স থেকে নিজেদের
একবার দেখা যাক ঘোর অনিয়মের বাসরে।

পূর্বরাগ পরবর্তী পর্ব হোক একটু লুকিয়ে
আর অনেকখানি বৈবাহিক বিশ্বাস চুরিয়ে
কে না জানে, ডিজিটাল যুগ শেকড়ে পুরনো,
কান থেকে কখনো কুৎসা দেয় না ফিরিয়ে
খুব সহজেই গোপনকে দেয় বদনাম দিয়ে।

বদনাম নিজের গতিতে হাওয়ায় হাল্কা ভাসে
তবু ভালোবাসা নিজে থেকে কাছে অনায়াসে
নিয়ম বহির্ভূত শয্যার দুর্বার ডাক রক্তে আসে
কোথায় যাওয়া যায় জমিয়ে রাখা সাত মাসে
কষ্টের টাকায় এবং সুবিধাজনক আশেপাশে!

চল নিভৃতি কিনি এ যুগের রীতিনীতি ধরে
হিসেবের খাতা থেকে নিজেদের ব্যয় করে
কাছাকাছি আসি শয্যাসাক্ষী ভাড়া করা ঘরে
প্রেমের যমুনা উঠবে ফুঁসে আবেগী চাদরে
চল ডুবি সেই নদীতে অসহ্য সংরাগে মরে।
কে না জানে গোপনেই প্রণয়ের মাধুর্য চড়ে
চলে যাব প্রতীক্ষারত রাধিকা রিসর্টের ঘরে

মধ্যবিত্ত প্রণয়ের মাপে মাপে শুভ অবসর
ডিল্যাক্স ডাবল রুম মাত্র বারশো টাকা দর।