বাতাসে অশথপাতা পড়িছে খসিয়া

(কোনো জাপানি কবিতার ইংরাজি অনুবাদ হইতে) বাতাসে অশথপাতা পড়িছে খসিয়া, বাতাসেতে দেবদারু উঠিছে শ্বসিয়া। দিবসের পরে বসি রাত্রি মুদে আঁখি, নীড়েতে বসিয়া যেন পাহাড়ের পাখি। শ্রান্ত পদে ভ্রমি আমি নগরে…

Continue Readingবাতাসে অশথপাতা পড়িছে খসিয়া

কবি

ওই যেতেছেন কবি কাননের পথ দিয়া, কভু বা অবাক, কভু ভকতি-বিহ্বল হিয়া। নিজের প্রাণের মাঝে একটি যে বীণা বাজে, সে বাণী শুনিতেছেন হৃদয় মাঝারে গিয়া। বনে যতগুলি ফুল আলো করি…

Continue Readingকবি

বিসর্জন

যে তোরে বাসেরে ভালো, তারে ভালোবেসে বাছা, চিরকাল সুখে তুই রোস্‌। বিদায়! মোদের ঘরে রতন আছিলি তুই, এখন তাহারি তুই হোস্‌। আমাদের আশীর্বাদ নিয়ে তুই যা রে এক পরিবার হতে…

Continue Readingবিসর্জন

সূর্য ও ফুল

মহীয়সী মহিমার আগ্নেয় কুসুম সূর্য, ধায় লভিবারে বিশ্রামের ঘুম। ভাঙা এক ভিত্তি-‘পরে ফুল শুভ্রবাস, চারি দিকে শুভ্রদল করিয়া বিকাশ মাথা তুলে চেয়ে দেখে সুনীল বিমানে অমর আলোকময় তপনের পানে, ছোটো…

Continue Readingসূর্য ও ফুল

তারা ও আঁখি

কাল সন্ধ্যাকালে ধীরে সন্ধ্যার বাতাস বহিয়া আনিতেছিল ফুলের সুবাস। রাত্রি হ’ল, আঁধারের ঘনীভূত ছায়ে পাখিগুলি একে একে পড়িল ঘুমায়ে। প্রফুল্ল বসন্ত ছিল ঘেরি চারি ধার আছিল প্রফুল্লতর যৌবন তোমার, তারকা…

Continue Readingতারা ও আঁখি

সম্মিলন

সেথায় কপোত-বধূ লতার আড়ালে দিবানিশি গাহে শুধু প্রেমের বিলাপ। নবীন চাঁদের করে একটি হরিণী আমাদের গৃহদ্বারে আরামে ঘুমায়। তার শান্ত নিদ্রাকালে নিশ্বাস পতনে প্রহর গণিতে পারি স্তব্ধ রজনীর। সুখের আবাসে…

Continue Readingসম্মিলন

বিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১৩ (নহে নহে এ মনে মরণ)

নহে নহে এ মনে মরণ। সহসা এ প্রাণপূর্ণ নিশ্বাসবাতাস নীরবে করে যে পলায়ন, আলোতে ফুটায় আলো এই আঁখিতারা নিবে যায় একদা নিশীথে, বহে না রুধিরনদী, সুকোমল তনু ধূলায় মিলায় ধরণীতে,…

Continue Readingবিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১৩ (নহে নহে এ মনে মরণ)

বিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১২ (দেখিনু যে এক আশার স্বপন)

দেখিনু যে এক আশার স্বপন শুধু তা স্বপন, স্বপনময়– স্বপন বই সে কিছুই নয়। অবশ হৃদয় অবসাদময় হারাইয়া সুখ শ্রান্ত অতিশয়– আজিকে উঠিনু জাগি কেবল একটি স্বপন লাগি! বীণাটি আমার…

Continue Readingবিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১২ (দেখিনু যে এক আশার স্বপন)

বিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১১ (রবির কিরণ হতে আড়াল করিয়া রেখে)

রবির কিরণ হতে আড়াল করিয়া রেখে মনটি আমার আমি গোলাপে রাখিনু ঢেকে– সে বিছানা সুকোমল, বিমল নীহার চেয়ে, তারি মাঝে মনখানি রাখিলাম লুকাইয়ে। একটি ফুল না নড়ে, একটি পাতা না…

Continue Readingবিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১১ (রবির কিরণ হতে আড়াল করিয়া রেখে)

বিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১০ (কেমনে কী হল পারি নে বলিতে)

কেমনে কী হল পারি নে বলিতে, এইটুকু শুধু জানি– নবীন কিরণে ভাসিছে সে দিন প্রভাতের তনুখানি। বসন্ত তখনো কিশোর কুমার, কুঁড়ি উঠে নাই ফুটি, শাখায় শাখায় বিহগ বিহগী বসে আছে…

Continue Readingবিদেশী ফুলের গুচ্ছ – ১০ (কেমনে কী হল পারি নে বলিতে)